কোন এক দিন – ছন্নছাড়া।

ছন্নছাড়া

 

কোন এক দিন হঠাৎ করে, একা আমি
মেঠো পথ ধরে হেঁটে যেতে চাই সীমাহীন সুদূরে, যেথায় পথের প্রান্তে ছড়িয়ে থাকবে সবুজে মোড়া ধানক্ষেত কিংবা বিস্তৃত বনরাজি!

পাখির কলকাকলিতে মুখরিত হবে চারপাশ,
সেথায় বটবৃক্ষের ছায়াতলে বসে শুনব তা!
হয়ত কোন রাখালিয়া একমনে বাজাবে সেথায় তাঁর আঁড় বাঁশি! সেই বাঁশির মোহময়ী সুরে আমার শহুরে সভ্যতার মন হবে উদাসী!

কল্পনায় থাকা প্রেয়সীর স্নিগ্ধ রূপের চ্ছটা
মনের মাঝে আঁকবে ভালোবাসার জলতরঙ্গ!
চোখ চলে যাবে আনমনে মেঘময় আকাশের দিকে,
সেথায় রামধনু ছড়িয়ে রাখবে তার সপ্ত রঙের ভেলা।

কল্পনায় ভর করে সেই ভেলায় চড়ে ভেসে যাব প্রেয়সীর কাছে, তাঁর ভালোবাসার পরশ মেখে নেব সর্ব অঙ্গ জুড়ে। তারপর স্মৃতিপটে আঁকা সেই মধুর স্মৃতি নিয়ে কর্মব্যস্ত জীবনে ফিরে এসে দাঁড়াব আবার।

কর্মক্লান্তি যখন অবসন্ন করে দেবে আমায়, তখন কোন এক নিঃসঙ্গ মুহূর্তে নরম মখমলের বিছানায় বিশ্রাম নিতে নিতে, ভেসে যাব আবার না হয় সেই স্মৃতির সরণি বেয়ে!

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *