জীবনের খাতা ভাসানোর পর পর // সুদীপ্ত বিশ্বাস

https://www.sahityalok.com/


নগ্নতা  //   – সুদীপ্ত বিশ্বাস
রাতের কাছে নগ্ন হতে লজ্জা তো নেই
বরং ও রাত ঘন কালো চাদর মুড়ে
ঢেকে রাখে আমার যত নগ্নতা সব।
ওই আকাশে নগ্ন হতে লজ্জা তো নেই
বরং আকাশ ছাতার মত মাথার উপর
মুড়ে রাখে সবকিছু  তার বুকের ভিতর।
জল বাতাসে নগ্ন হতে লজ্জা তো নেই
তারা বরং একটু বেশি খুশি হয়েই
ফিসফিসিয়ে বলে কিছু বাড়তি কথা।
নদীর কাছেও নগ্ন হতে লজ্জা তো নেই
বরং নদী ছলাত-ছলাত ছন্দ তুলে
নগ্ন হয়েই আমায় শুধু নাইতে বলে।
বন-পাহাড়ে নগ্ন হতে লজ্জা তো নেই
বরং তারা খুব খুশিতে দুজনেই চায়
আমি যেন খালি পায়ে যাই হেঁটে যাই।
পশুপাখিওদের কাছেও লজ্জা তো নেই
বরং তারা বন্দুক আর চশমা-টুপি 
এসব ছাড়াই সত্যি কোনও বন্ধুকে চায়।
এই পৃথিবীর সত্য যারা তাদের কাছে
নগ্ন হতে লজ্জা তো নেই,লজ্জা তো নেই
কারণ সত্য নগ্ন হতে লজ্জা পায় না।
মানুষ দেখে নগ্ন হতে লজ্জা করে
মানুষগুলো লুকিয়ে রাখে নিজের মুখও
তার শুধুই মিথ্যে বলে, মুখোশ পরে।
এই সমাজে নগ্ন হতে লজ্জা করে
গোটা সমাজ মিথ্যেবাদী, ভ্রষ্টাচারী
নগ্নতা আর সরলতার সুযোগ খোঁজে।
ভালবাসা যদি ফিরে পাই / সুুুুদীপ্ত বিশ্বাস 
ভালবাসা যদি ফিরে পাই
তবে তো নাচবো ভাই
তাধিন তাধিন…
পোড়া বিড়ি দেব ছুঁড়ে ফেলে।
ফেলে দেব তামাকের শিশি
ছেড়ে দেব সব ছাইপাঁশ
তেতো জল, বিলিতি বা দিশি।
ভালবাসা যদি ফিরে পাই
তবে তো গাইবো ভাই
গলা ছেড়ে যা আসবে মনে
বাতাসকে বলে দেব আমি কত সুখি 
আকাশকে বলে দেব আমি কত সুখি 
পাহাড়কে বলে দেব আমি কত সুখি 
তারাদের বলে দেব আমি কত সুখি। 
ভালবাসা যদি ফিরে পাই
তাহলে তো  ভাই
হয়ে যাব ফুল, পাখি, নদী।
ভালবাসা ফিরে পাই যদি –
নরম পালক নিয়ে
রামধনু রঙ মেখে এসে
বয়ে যাব তির-তির,
 পাহাড়ের দেশে।
ভালবাসা যদি ফিরে পাই
তবে তো বাঁচবো ভাই
সমস্ত জীবন।
প্রতিটা মুহূর্ত বেঁচে বেঁচে
প্রতিটা শরৎ বেঁচে বেঁচে
প্রতিটা বছর বেঁচে বেঁচে
প্রতিটা দশক বেঁচে বেঁচে
তবুও তো ভরবে না মন।
বলে যাব, ‘বড় ছোট এ জীবন।’

নদী ও প্রেমিক 
পাহাড়ের বুক চিরে ঝর্ণাটা নামে
অনেক না বলা কথা আছে নীল খামে।
ঝর্ণারা মিলেমিশে হয়ে যায় নদী
শুনবে নদীর গান , কান পাতো যদি।
ও নদী কোথায় যাও? ছল ছল তানে?
দাও নদী দাও বলে জীবনের মানে।
ঘন্টার ঠুন ঠুন, আজানের সুর
নদী জলে মিশে যায় সোনা রোদ্দুর।
ছোট ছোট ঢেউ তুলে নেচে নেচে যায়
সব মেয়ে তাই বুঝি নদী হতে চায়?
ও নদী চলেছ বয়ে, নদী তুমি কার?
প্রেমিকটা প্রাণপণ কাটছে সাঁতার।
সাঁতরে সাঁতরে আরো  কতদূর যাবে?
কতটা গভীরে গেলে তবে তল পাবে?
নদীটা যেই না গিয়ে সাগরেতে মেশে,  
প্রেমিক ঘুমিয়ে পড়ে  সঙ্গম  শেষে…
বাক্যহারা  //  – সুদীপ্ত বিশ্বাস


অবলা কথারা আটকে রয়েছে চোখে
অবুঝ মনের বোবা কান্নার মত
আজকে এখন পাথর চোখেতে শুধু
হারানো আবেগ পুরানো দিনের ক্ষত।
বুঝলে না কিছু বুঝতে চাওনি বলে
সুরের ইশারা সুরকার শুধু জানে
দূরের বাতাস দূরে চলে যায় আরও
মন শুধু বোঝে হারানো গানের মানে।
এসেছিল যেটা একদিন নিঃশব্দে
বাতাসেও ছিল চুপিচুপি আসা যাওয়া
রূপকথা দেশে হারানো বিকেলগুলো
সবটাই যেন মিথ্যে অলীক মায়া।
জীবনের খাতা ভাসানোর পর পর
দুচোখ ভেজায় অঝোর অশ্রুধারা
অল্প দুঃখে সশব্দে কেঁদে ওঠে
গভীর দুঃখে ঠোঁটেরা বাক্যহারা


Sudipta Biswas,Deputy Magistrate & Deputy Collector,(WBCS Exe.),
Nokari Uttar Para, PS-Ranaghat,Dist- Nadia,Pin- 741202


কবি পরিচিতিঃঃ সুদীপ্ত বিশ্বাস কবি ও ছড়াকার।রাজ্য সরকারি আধিকারিক  । কবিতার বই সাতটি ও ছড়ার বই তিনিটি।তার কবিতা গত দশক ধরে প্রকাশিত হয়েছে বিভিন্ন   পত্র পত্রিকাতে। কবি রানাঘাটের বাসিন্দা।  

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *