নদী – সঞ্চিতা রায় (ঝুমা) কল্যাণী নদীয়া

নদী -  সঞ্চিতা রায়   (ঝুমা)  কল্যাণী নদীয়া
  
তুমি তো আমার ই  নদী । 
 সুউচ্চ পাহাড়  থেকে ছুটে আসছো আমার কাছে।
যখন তুমি খরস্রোতা,যখন তুমি উদ্দাম
তখন তুমি পাহাড়কে ভালবেসে তাকে জড়িয়ে থেকেছো। ঝর্ণার বন্ধু হয়েছো। 
কখন ও  ভাবনি ,সাগর আছে তোমার প্রতীক্ষায়। ভাবার অবকাশ ছিল না যে। 
  তখন তুমি যে পূর্ণযৌবনা ছিলে।  
গাছ,  পাহাড় পাহাড়ী নুড়ি,সবাই
 মগ্ন ছিল তোমার উন্মত্ত স্পর্ষ কামনায়। 
 মধ্যবেলায় সমতল ছিল তোমার সাথী। 
সমতলের সাথীরা ভেসেছে তোমার সাথে।
 
হেসেছে,খেলেছে তোমার সাথে।  
কিন্তু দেখো শেষে কিন্তু আমার সাথেই মিলন হ‘ল। আমি যে তোমার নিয়তি। 
আমি যে তোমার জন্য অপেক্ষায় থাকি। 
সাগরের সাথে মিলনেই  নদীর সার্থকতা। 
তখন হয়তো তুমি বিগত যৌবনা।
   
আমি তবুও তোমার সাথে মিলি। 
যায় আসেনা কোনো কিছুতেই।     
আমি যে তোমায় ভালবাসি। 
তাই তো জীবনের শেষে বেলাতেও
মিষ্টি সাগর সঙ্গম ঘটে। 
হ্যাঁ নদী ভালোবাসার জয়
এমন ভাবেই চিরকাল ঘটে চলে। 
এমনি করেই সাগর নদীর প্রতীক্ষায় থাকে। থাকবে আবহমানকাল জুড়ে। 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *