সমরের দীর্ঘ কলম // সুদীপ ঘোষাল

sahityakaal.com


লেখা, নামে এক সুন্দরী বউকে চিনত সমর

যে  না চাইতেই সবকিছু পেয়ে যায়

তার কাছে সুখ অধরাই থেকে যায়

তবু তার মাঝেই সকাল সন্ধ্যা চোখাচোখি

সমরের ইচ্ছে শৃগাল বড় চতুর

লুকিয়ে চুরিয়ে লালামাখা গালে লাল চিহ্নে

ভালবাসা লিখত সময় পেলেই

সমরের দীর্ঘ কলম লেখার কাগজে আঁকত ছবি বেহালায় টানত

ছড়ি, বাজিয়ে তুলত বীণার মধ্যম সুর

লেখার বর ফিরত সেই গভীর অজানা বজ্র মাথায় নিয়ে

মাস মাইনের হিসেব কষতেই দুঃখমাসের শেষ সপ্তাহে বেতনের খাতায় ক্রোধ

উগরে পড়ত আনাচে কানাচে অন্য পাত্রে

আসলে যেটা হবার নয়

তার পিছনে শামুকের মত গুটিয়ে থাকা ছাড়া আর উপায় ছিল না

তার কোন সন্তান ছিল না, কোন গীটারের নখ ছিল না, দীর্ঘ কলম

ছিল না

একদিন লেখা তাকে ছেড়ে চলে গেল একটু আদরে বাগিচায়

সমর ভাল অর্থ রোজগার করে,সে সব পেয়েছির আসরের নেতা

তার প্রশাসন আছে তার শরীর আছে তার অর্থবল আছে

লেখা বলে, এস আমার কৃষ্ণ কানহাইয়া…

বেশ চলছিল আলো আঁধারের খেলা

বিষয়টি পরিষ্কার হতে সময় লাগে

আড়াই হাতের বাঁশি নাকি, মূরলী

কবিগানে শুনেছে, সত্য তার প্রমাণ নেই

বাংলা ভাষার মত আদরে, লেখা

যার সব আছে তার কি যেন নেই

সে নিজেই জানে না

শুধু একটা অজানা অভাববোধ থেকে

চিড় ধরে সকলের অজান্তে

এবার বাদল এল তারপর শরৎ

সমর এগিয়ে চলেছে সহজ পথে

পিছনে কাঁদে লেখার কেউ না, শুধুই আবেগ….

হেমন্তের এক দুপুরে

বসে আছে লেখার আশ্রয়ে সমর

আগুন ছিল ফাগুনে, হঠাৎ পিছু ফেরার সময় ছিল না

অপরের বেদনা তুচ্ছ হত  ওদের অভিসারে

আদুল গায়ে ঘাম গড়াত গর্বে

পরপর তুবড়ির রোশনাই

জ্বলত তাদের মোম শরীর গলনের ধর্মে

আদরে সোহাগে জীবন হয়েছে মোমবাতি মন

দীর্ঘ কলমে ঘুণ ধরছে অপরিসীম

হাসপাতাল বাড়ি করে, সমর আর  লেখা

বুলি শেখায় কাকাতুয়ার সুর

আমার কিছু হলেই তুমি একা নও

এই বাড়িঘর টাকাপয়সা বাঁকা চাঁদ, আকাশ

লেখা ছবি আঁকে স্বপ্নে সাদা কাশ অসময়ে

শুধু সাদা ধূ ধূ সাদা

সমরের দীর্ঘ কলম লেখার কাগজে শেষ ছবি এঁকে

দীর্ঘ ঠিকানা  ধরে চলেছে অনন্ত বিরাম পথে  ….

  ৫

লেখার সমগ্র চেতনা ঘিরে অভিমান

পূর্ব প্রেমিকের গাথা গাথে,  মরিয়া লেখা

খুঁজে বেড়ায় পুরোনো পুকুর

একটা শালুক কিংবা পদ্মপাতার টলমল জল

শুধু চোখে দেখে সকাল সন্ধ্যা

পূর্ব প্রেম কামহীন শামুক চলন

প্রেম ফেরে দয়ার সুরে বকম বাকুম

আর কদিনের খেলা দিনশেষে অবহেলা সুর

তারপর লেখা স্বামী ফিরে পেল আড়াল খুঁজে

লেখা আজ বিচিত্র সাজে

কত স্মৃতি মনে আসে বিরহ বিকেল

একদিন সবই ছিল, তবু অবিশ্বাসি মন

আপশোষ ঘোড়া ছোটে পূর্ব যোজন পথ

সমরের দীর্ঘ কলমে  বৃথাই শপথ

দিন কাল চলে যায়

পরে থাকে স্মৃতি

ওগো বেঁচে থাকা হৃদয়

ভুলে যেও অবিশ্বাসির গোপন প্রণয়

তোমার যেটুকু    আছে সেটুকুই থাক

আরও চাই বাণী মোর মিথ্যা হয়ে যাক।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *